কিয়াম ইন্ডাকশন চুলার দাম কত টাকা আজকে ২০২৪

কিয়াম ইন্ডাকশন চুলার দাম কত টাকা আজকে এবং কিয়াম ইনফ্রারেড চুলার দাম বাংলাদেশে কত টাকা এই বিষয়গুলো সম্পর্কে বিস্তারিত জানতে পারবেন এই পোস্টে। কিয়াম ইলেকট্রিক চুলা কিনতে চাইলে পোস্টটি সম্পূর্ণ পড়ুন।

ইলেকট্রিক চুলা ব্যবহার অনেক বেড়েছে। আপনিও ইলেকট্রিক চুলা কিনতে চান এবং কোন ইলেকট্রিক চুলা কিনবেন ভেবে না পান, তাহলে পোস্টটি আপনার জন্যই। চলুন, বাজারের সেরা ইলেকট্রিক চুলা কিয়াম ইন্ডাকশন এর দাম জেনে নেয়া যাক।

কিয়াম ইন্ডাকশন চুলার দাম কত টাকা

কিয়াম ইন্ডাকশন চুলার দাম ৪ হাজার টাকা থেকে ৫ হাজার টাকা পর্যন্ত বিক্রি হচ্ছে। কিয়াম ইন্ডাকশন চুলার বিভিন্ন মডেল রয়েছে। মডেল অনুযায়ী সুবিধা কমবেশি হয়ে থাকে। বিভিন্ন মডেলের কিয়াম ইলেকট্রিক চুলা ৪ থেকে ৫ হাজার টাকায় কিনতে পারবেন।

কিয়াম ইন্ডাকশন চুলা

কিয়াম ইন্ডাকশন চুলার দাম ২০২৪

কিয়াম ইন্ডাকশন চুলার বিভিন্ন মডেল রয়েছে। মডেলের উপর ভিত্তি করে চুলার দাম কমবেশি হয়। তবে, ৪ হাজার টাকা থেকে ৫ হাজার টাকায় ভালো মানের কিয়াম ইলেকট্রিক চুলা কিনতে পাওয়া যাবে। নিচে Kiam Induction Cooker এর দাম এবং Kiam Infrared Cooker এর দাম উল্লেখ করে দেয়া রয়েছে।

কিয়াম ইন্ডাকশন কুকার দাম

কিয়াম ইন্ডাকশন চুলাআজকের দাম
KIAM Infrared Cooker H-114,300 টাকা
Kiam H-66 Gold Infrared Cooker4,100 টাকা
Kiam Induction Cooker H-22 Premium4,750 টাকা
Kiam Infrared Cooker H-884,815 টাকা

উপরে উল্লিখিত দামের তালিকা অনুযায়ী কিয়াম ইন্ডাকশন চুলা এবং কিয়াম ইনফ্রারেড চুলা কিনতে পারবেন। কিয়াম কারেন্টের চুলা কিনতে আপনার নিকটস্থ যেকোনো ইলেক্ট্রনিক্স পণ্যের দোকান কিংবা অনলাইনে বিভিন্ন ই-কমার্স ওয়েবসাইট থেকে কিনতে পারবেন।

কিয়াম ইন্ডাকশন চুলা কত টাকা

বড়, মাঝারি, ছোট বিভিন্ন সাইজের এবং বিভিন্ন মডেলের ইন্ডাকশন চুলা রয়েছে কিয়াম কোম্পানির। কোন সাইজের এবং কোন মডেলের ইন্ডাকশন চুলা কিনবেন তার উপর ভিত্তি করে দাম নির্ধারিত হয়ে থাকে। ইতোমধ্যে কয়েকটি মডেলের কিয়াম কারেন্টের চুলার দাম উল্লেখ করে দিয়েছি।

অনলাইনে বিভিন্ন ই-কমার্স ওয়েবসাইট থেকেও কিয়াম ইন্ডাকশন কিনতে পারবেন। অনলাইনে কিনলে ভাউচার সহ বিভিন্ন অফার পাওয়া যায়। অল্প দামের মাঝেই একটি কিয়াম ইন্ডাকশন কিনতে পারবেন।

ইন্ডাকশন চুলার অসুবিধা

ইন্ডাকশন চুলার বহুবিধ সুবিধার মাঝে একটি অসুবিধা রয়েছে। তা হচ্ছে, কারেন্ট চলে গেলে রান্না করতে সমস্যা হয়। যেহেতু ইন্ডাকশন চুলা ব্যবহার করতে কারেন্ট প্রয়োজন হয়। তাই, কারেন্ট ছাড়া রান্না করতে ঝামেলায় পড়তে হয়।

কিয়াম ইন্ডাকশন চুলাও অন্যান্য চুলার মতো কারেন্ট ছাড়া চালাতে পারবেন না। এই একটি মাত্র অসুবিধা সকল ইন্ডাকশন চুলার মাঝে রয়েছে। এছাড়া, অল্প খরচে সারামাস রান্না করা যায় ইন্ডাকশন ব্যবহার করে।

কিয়াম চুলার দাম কত টাকা ২০২৪

কিয়াম এর বিভিন্ন মডেলের চুলা রয়েছে। মডেলের উপর নির্ভর করে এসব চুলার দাম কমবেশি হয়। আপনি ইন্ডাকশন চুলার জন্য কী কী সুবিধা চাচ্ছেন তার উপর ভিত্তি করে চুলার দাম কমবেশি হবে। এছাড়াও, বিভিন্ন ইন্ডাকশন চুলা অনেক ভালো মানের হওয়ার কারণে এগুলোর দাম বেশি হয়ে থাকে।

কিয়াম চুলার দাম ২০২৩ সালে একটু কম থাকলেও ২০২৪ সালে দাম একটু বৃদ্ধি পেয়েছে। তবে, নাগালের মাঝেই একটি কিয়াম কারেন্টের চুলা কিনতে পারবেন অনলাইন থেকে কিংবা যেকোনো ইলেক্ট্রনিকস পণ্যের দোকানে। এছাড়াও, ইন্ডাকশনের সাথে ওয়ারেন্টি তো থাকছেই।

কিয়াম ইন্ডাকশন চুলার সুবিধা

ইনডাকশন কুকার প্রচলিত চুলার তুলনায় অনেক দ্রুত রান্না করে। কারণ এটি সরাসরি রান্নার পাত্রকে গরম করে, চুলার তলা নয়। ইনডাকশন কুকার প্রচলিত চুলার তুলনায় কম বিদ্যুৎ খরচ করে।

ইনডাকশন কুকার সাধারণ চুলার তুলনায় অনেক বেশি নিরাপদ। কারণ এতে খোলা আগুন নেই, তাই আগুন লাগার ঝুঁকি নেই। ইনডাকশন কুকার প্রচলিত চুলার তুলনায় অনেক সহজে পরিষ্কার করা যায়। এতে খাবার পোড়া বা লেগে থাকার সম্ভাবনা কম।

শেষ কথা

আজকের প্রাইস বিডি ওয়েবসাইটের আজকের এই ব্লগে আপনাদের সাথে কিয়াম ইন্ডাকশন চুলার দাম কত টাকা ২০২৪ নিয়ে আলোচনা করেছি। পোস্টে কিয়াম ইলেকট্রিক চুলার দাম এবং কিয়াম ইন্ডাকশন কুকার এর বিভিন্ন সুবিধা নিয়েও আলোচনা করা হয়েছে।

আরও এমন বিভিন্ন প্রয়োজনীয় জিনিসের দামনিত্যপণ্যের দামখাদ্যদ্রব্যের দামইলেক্ট্রনিকস পণ্যের দাম জানতে আমাদের ওয়েবসাইটটি ভিজিট করুন।

আমি Ajker Price BD ওয়েবসাইটের প্রতিষ্ঠাতা এবং অ্যাডমিন। প্রফেশনালি কন্টেন্ট রাইটিং করার পাশাপাশি এই ব্লগে বিভিন্ন পণ্যের দাম এবং অন্যান্য তথ্য নিয়ে লিখে থাকি।

Leave a Comment